ক্লাউড হোস্টিং কি?

সাধারণত আমরা যখন কোন ওয়েবসাইট হোস্টিং করি, তা একটি সার্ভারে সংরক্ষিত থাকে। কিন্তু ক্লাউড হোস্টিং এর ক্ষেত্রে অনেক গুলো সার্ভারের মাধ্যমে আপনার সাইট ইউজারের কাছে পৌছাতে পারে। অর্থাৎ একটি সার্ভারের মধ্যেই আপনার সাইট সিমাবধ্য না থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন সার্ভার এর সমন্বয়ে তৈরি বলয় বা ক্লাউড এর মাধ্যমে ইউজারের কাছে পৌছাতে পারে। এই বলয় ভিন্ন ভিন্ন দেশে সংরক্ষিত সার্ভার এর সমন্বয়ে তৈরি হয়ে থাকে।

ক্লাউড হোস্টিং এর সুবিধাঃ

ওয়েব সাইট কোন একটি সার্ভারের মধ্যে সিমাবধ্য থাকেনা, বিধায় একটি সার্ভার ক্রাশ করলেও অন্য গুলো থেকে আপনার সাইট ঠিকই দেখা যাবে। এর মাধ্যমে ১০০% আপটাইম নিশ্চিত করা যায়।

ক্লাউড হোস্টিং কন্টেন্ট ডেলিভারি নেটওয়ার্ক (সি.ডি.এন) এর মাধ্যমে দেয়। অর্থাৎ, আপনার মূল সার্ভার টি ইউ.এস.এ বা ইউ.কে তে হলেও আপনার সাইট লোড হবে ইউজারের কাছাকাছি সি.ডি.এন সার্ভার থেকে। অর্থাৎ, কেউ আপনার সাইটে অস্ট্রেলিয়া থেকে ভিজিট করলে আপনার সাইট লোড হবে অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থিত সি.ডি.এন সার্ভার থেকে। এর মাধ্যমে ৩০%-৪০% সাইট স্পিড বেশি পাওয়া যায়।

ক্লাউড হোস্টিং এর অসুবিধাঃ

ক্লাউড হোস্টিং এর বড় অসুবিধা হল, এটি বেশ ব্যায়বহুল। অন্তত বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে।

কিন্তু আমরা কম প্রাইজে ক্লাউড হোস্টিং প্রভাইড করছি। আমরা ৩ হাজার টাকার যে হোস্টিং দিচ্ছি তার ইন্টারন্যাশনাল বাজার মূল্য ১৮০ ডলার বা ১৫ হাজার টাকা।

তাই ১০০% আপটাইম পেতে এবং দ্রুত সাইট লোড চাইলে আপনিও আমাদের ক্লাউড হোস্টিং ব্যবহার করতে পারেন।



Friday, September 4, 2020





« Back